১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার

চানক্যের বাণী: চর্চার অভাবে জ্ঞান বিলুপ্ত হয়ে যায়

আনোয়ার হোসেইন মঞ্জু

ভারতীয় উপমহাদেশে দুই হাজার তিনশ’ পঁচাত্তর বছর আগে বর্তমান পাকিস্তানের পাঞ্জাবে রাওয়ালপিণ্ডির কাছে তক্ষশীলায় এক ব্রাক্ষ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এক মহান দার্শনিক, রাজনীতিবিদ, আইনবিদ, অর্থনীতিবিদ রাজ উপদেষ্টা ও সমরবিদ। তার নাম চানক্য (খ্রিস্টপূর্ব ৩৫০-২৭৫)। তিনি কৌটিল্য এবং বিষ্ণুগুপ্ত নামেও পরিচিত ছিলেন। তিনি ছিলেন ভারতে মৌর্য সাম্রাজ্যের (খ্রিস্টপূর্ব ৩২২-১৮৫) প্রতিষ্ঠাতা চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের (খ্রিস্টপূর্ব ৩২১-২৯৭) প্রধানমন্ত্রী। অন্য এক বর্ণনা অনুসারে তিনি সম্রাট চন্দ্রগুপ্ত মৌর্যের উপদেষ্টা ছিলেন। কীভাবে দক্ষতার সঙ্গে এবং কার্যকরভাবে সাম্রাজ্য পরিচালনা করতে হবে সেজন্য তিনি তরুণ সম্রাট চন্দ্রগুপ্তের জন্য তিনি নির্দেশনামূলক রাজনৈতিক গ্রন্থ রচনা করেন, যেটির নাম “অর্থশাস্ত্র” এবং এই গ্রন্থে লিপিবদ্ধ কৌশল ও উপায়গুলোর অনুসরণ চন্দ্রগুপ্ত একজন নাগরিক থেকে বিশাল মৌর্য সাম্রাজ্যের সম্রাটে পরিণত করেছিল। এছাড়া নীতি শিক্ষা ও উপদেশমূলক বাণী সমৃদ্ধ তাঁর আরেকটি গ্রন্থের নাম “চানক্য নীতি।” রাজশাসনের প্রক্রিয়া সম্পর্কে চানক্যের পরামর্শ নিয়ে অনেকর দ্বিমত থাকতে পারে, কিন্তু কারও পক্ষে তাঁর মেধা ও বুদ্ধিমত্তাকে অস্বীকার করার উপায় নেই। প্রায় আড়াই হাজার বছর পরও তার বাণীগুলো মানুষের অনুসরণীয়। তিনি যোদ্ধ ছিলেন না, কিন্তু তিনি তাঁর মস্তিস্ক ব্যবহার করে যুদ্ধ করেছেন। আমরা চানক্যের বাণী থেকে জীবনের বাস্তবতা সম্পর্কে ধারণা লাভ করাসহ নানাভাবে উপকৃত হতে পারি:

**
“যে ব্যক্তি তার পরিবারের সদস্যদের প্রতি অতিরিক্ত মায়ামতা পোষণ করেন, তিনি ভীতি ও দু:খের অভিজ্ঞতা লাভ করেন। কারণ সকল দু:খের মূল হচ্ছে মায়া। সেজন্য সুখী থাকার সর্বোত্তম উপায় হলে মায়া ত্যাগ করা।”

**
“সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ গুরু-মন্ত্র হচ্ছে: ‘কাউকে তোমার গোপনীয়তার শরীক করো না। তা করলে তুমি ধ্বংস হবে।”

**
“শিক্ষা সর্বোত্তম বন্ধু। একজন শিক্ষিত মানুষ সর্বত্র শ্রদ্ধাভাজন। শিক্ষা সৌন্দর্য ও তারুণ্যকে হার মানায়।”

**
“যে তার লক্ষ্য স্থির করতে পারে না, সে কখনও জিততে পারে না।”

**
“কর্তব্য পালন করার সময় ভৃত্যকে, কঠিন পরিস্থিতিতে কোনো আত্মীয়কে, বিপদের সময় কোনো বন্ধুকে এবং দুর্ভাগ্যের সময় স্ত্রীকে পরীক্ষা করো।”

**
“যিনি তোমার সামনে মিষ্টি কথা বলেন, কিন্তু তোমার পেছনে তোমাকে ধ্বংস করতে চেষ্টা করেন, তাকে এড়িয়ে চলো। কারণ তিনি পাত্র ভর্তি বিষের ওপর রাখা দুধের মতো।”

**
“কোনো সাপ যদি বিষাক্ত নাও হয়, তবুও সেটির উচিত বিষাক্ত হওয়ার ভান করা।”

**
“কোনো ব্যক্তি অধিক সৎ হওয়া সঙ্গত নয়। সোজা গাছ প্রথমে কাটা হয় এবং সৎ মানুষ প্রথমে বিপদে পড়ে।”

**
“একজন মানুষ তার কর্ম দ্বারা মহান, জন্ম দ্বারা নয়।”

**
“তুমি কোনো কাজ শুরু করার আগে সবসময় নিজেকে তিনটি প্রশ্ন করবে: ‘কাজটি আমি করছি কেন, এর ফলাফল কি হবে এবং এর আমি কি সফল হবো?’ তুমি যখন গভীর চিন্তা করবে এবং প্রশ্নগুলোর সন্তোষজনক উত্তর পাবে, কেবল তখনই তুমি তোমার কাজ শুরু করো।”

**
“ইশ্বর বৃক্ষে অথবা পাথর বা মাটির মূর্তিতে থাকেন না। তাঁর আশ্রয় আমাদের অনুভূতিতে, আমাদের ভাবনায়। শুধু এই অনুভূতির মাধ্যমেই আমরা এই মূর্তিগুলোর মধ্যে ইশ্বরের অস্তিত্ব খুঁজে পাই।”

**
“ইশ্বর মূর্তির মাঝে বাস করেন না। তোমার অনুভূতিই তোমার ইশ্বর। আত্মা তোমার মন্দির।”

**
“জ্ঞান চর্চা না করা হলে জ্ঞান বিলুপ্ত হয়ে যায়; অজ্ঞতার কারণে একজন মানুষ হারিয়ে যায়; একজন সেনাপতি ছাড়া একটি সেনাবাহিনী হারিয়ে যায়; স্বামী ছাড়া একজন নারীও হারিয়ে যায়।”

**
“কোনো কাজ শুরু করলে ব্যর্থতার ভয় করে কাজটি পরিত্যাগ করো না। যারা নিষ্ঠা ও আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করে, তারাই সবচেয়ে সুখী।”

**
“সম্পদ, বন্ধু, স্ত্রী এবং রাজ্য হারিয়ে গেলে পুনরায় অর্জন করা যেতে পারে, কিন্তু দেহ ভেঙে গেলে আর কখনও তা পুনরুদ্ধার করা সম্ভব নাও হতে পারে।”

**
“এমন লোকজনের সঙ্গে বন্ধুত্ব করো না, যারা তোমার মর্যাদার ওপরে অথবা নিচে। এ ধরনের বন্ধুত্বে তুমি কখনও সুখী হতে পারবে না।”

**
“প্রথম পাঁচ বছর তুমি তোমার সন্তানকে অধিক ভালোবাসো; পরবর্তী পাঁচ বছর তাকে তিরস্কার করো; ষোলো বছর বয়সে তার সঙ্গে বন্ধুর মতো আচরণ করো; তোমার বেড়ে ওঠা সন্তানরাই তোমার সর্বোত্তম বন্ধু।”

**
“নমনীয়তাই আত্ম-নিয়ন্ত্রণের মূল।”

**
“একটি মরা গাছে যদি আগুন লাগে, তাহলে সেটি পুরো বনকে ভস্মীভূত করে; একইভাবে কোনো বদমাশ পুত্র পুরো পরিবারকে ধ্বংস করে।

**
“সাপের ফণায়, মাছির মুখে এবং বিছার হুলে বিষ আছে; কিন্তু বদ লোকের মাঝে এর সবই সম্পৃক্ত।”

**
“যিনি ঐশ্বরিক সত্তার কাছে ওঠার আকাংখা করেন, তার প্রয়োজন কথা, মন, ইন্দ্রিয় ও সদয় হৃদয়ের পরিশুদ্ধতা।”

**
“যেদিকে বাতাস প্রবাহিত হয়, ফুলের সুবাস সেদিকেই ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু একজন ব্যক্তির গুণ সকল দিকে ছড়িয়ে পড়ে।”

**
“যদি ধারণা করে থাকো যে ‘মোহ’ এবং ‘প্রেম’ অভিন্ন, তাহলে সে ধারণা পরিহার করো। দুটি পরস্পরের শত্রু। মোহ সকল প্রেমকে ধ্বংস করে।”

**
“পৃথিবীতে তিনটি মণি আছে: ‘খাদ্য, পানি ও সুন্দর কথা’ —– আহম্মকেরা পাথরের টুকরাকে মণি বিবেচনা করে।”

**
“সাহচর্যের জন্য তোমাকে যদি একজন বদ লোক এবং একটি সাপের মধ্য থেকে বেছে নিতে বলা হয়, তাহলে সাপকেই বেছে নাও। কারণ সাপ আত্মরক্ষার জন্য তোমাকে শুধু একবার দংশন করবে, কিন্তু বদ লোক কোনো কারণ ছাড়াই যেকোনো সময় অথবা সবসময় তোমাকে ছোবল মারবে।”

**
“পৃথিবী টিকে আছে সত্যের শক্তিতে। সত্যের শক্তিতে সূর্য কিরণ দেয় এবং বাতাস প্রবাহিত হয়। বাস্তবিকপক্ষে সবকিছুর ভিত্তি সত্য।”

**
“যার জ্ঞান গ্রন্থে সীমাবদ্ধ এবং যার সম্পদ অন্যের হাতে, প্রয়োজনের সময়ে সেই জ্ঞান বা সম্পদ তার কোনো কাজে আসে না।”
**
“শত্রুর দুর্বলতাগুলো না জানা পর্যন্ত তার সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখে।”

**
“তোমার যা প্রাপ্য তার চেয়ে কম কিছু নিয়ে আপস করো না। এর সঙ্গে অহঙ্কার নয়, আত্মমর্যাদার প্রশ্ন জড়িত।”

(দ্বিতীয় অংশের জন্য অপেক্ষা করুন)

অনুবাদ: আনোয়ার হোসেইন মঞ্জু

সর্বশেষ নিউজ