২০ জুলাই ২০২৪, শনিবার

যুক্তরাষ্ট্রে যুবককে পুলিশি নির্যাতনের ভিডিও প্রকাশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
spot_img

টায়ার নিকোলস নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ যুবককে যুক্তরাষ্ট্রের মিসিসিপি অঙ্গরাজ্যের মেম্ফিসে পুলিশি নির্যাতনের ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। গত ৭ জানুয়ারি ৫ পুলিশ কর্মকর্তার নির্যাতনের শিকার হন টায়ার নিকোলস (২৯)। এর তিনদিন পর হাসপাতালে মৃত্যু হয় যুবকের।

ট্রাফিক আইন অমান্য করার অপরাধে আটকায় পুলিশ। কিছুক্ষণ কথা বলার পর ভয়ে তিনি দৌড় দিলে পুলিশ সদস্যরা তাকে পাকড়াও করে বর্বর নির্যাতন চালান। তার মুখে একাধিক লাথি, ঘুষি মারেন তারা।

ভিডিওতে দেখা যায়, নির্যাতনের সময় মা মা বলে আর্তনাত করছিলেন নিকোলস। চিৎকার-আর্তনাতের পরও তার ওপর দীর্ঘ সময় চলে নির্যাতন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ভিডিওটি দেখে বলেছেন, এই ‘ভয়ানক ভিডিও’ দেখে ‘অত্যন্ত ব্যথিত’ হয়েছেন তিনি।

পুলিশের পক্ষ থেকে প্রথমে বলা হয়েছিল বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোয় নিকোলসকে আটক করা হয়েছিল। যে ৫ পুলিশ সদস্য নিকোলসের ওপর নির্যাতন চালিয়েছেন তারাও সবাই কৃষ্ণাঙ্গ। সাবেক পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তা হলেন তাদারিয়াস বেন, ডেমেট্রিয়াস হ্যালি, ডেসমন্ড মিলস জুনিয়র, এমিট মার্টিন তৃতীয় ও জাস্টিন স্মিথ। তাঁরা সবাই কারা হেফাজতে।

পাঁচ পুলিশ কর্মকর্তার সবাই গত ছয় বছরের মধ্যে মেমফিস পুলিশ বিভাগে যোগদান করেছিলেন। নিকোলসকে শারীরিক নির্যাতনের জন্য সরাসরি জড়িত থাকার বিষয়টি তদন্তে আসার পর গত সপ্তাহে তাঁদের বরখাস্ত করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। এরই মধ্যে প্রকাশ পেল এ ঘটনার ভিডিও।

সর্বশেষ নিউজ