২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বুধবার
--বিজ্ঞাপন-- Bangla Cars

যশোরে ইন্টার্ন চিকিৎসককে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দিল ওরা

যশোরে প্রতিনিধি
spot_img

যশোরে এক ইন্টার্ণ চিকিৎসককে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে আরেকদল ইন্টার্ণ চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার রাতে মেডিক্যাল কলেজ ছাত্র হোস্টেলের ১০৫ নম্বর রুমে ইন্টার্ণ চিকিৎসক জাকিরকে মারধর করা হয়।

আহত জাকির রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার হরিশ্বর গ্রামের শহিদ জামানের ছেলে।

এ ঘটনায় জাকিরের ভাই জাহাঙ্গীর আলম বৃহস্পতিবার যশোর কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দেন। এর আগেরদিন বুধবার মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ পাঁ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে।

যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাকির বলেন, ওরা যখন পেটাচ্ছিল, পৃথিবীর মুখ আর দেখব কিনা নিশ্চিত ছিলাম না। আমি তাদের বারবার বলেছি তোরা আর মারিস না। কিন্তু অজ্ঞান না হওয়া পর্যন্ত তারা আমাকে হকিস্টিক ও পাইপ দিয়ে মারতেই থাকে।’

যশোর মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসক জাকির হোসেন বিপ্লবের ধারণা, পূর্ব শত্রুতার জেরে কয়েক ইন্টার্ন চিকিৎসক তাকে নিষ্ঠুরভাবে মারপিট করেছে।

জাকির বলেন, ‘আমি মেডিক্যাল হোস্টেলের ১০৫ নম্বর রুমে থাকি। পাশের ১০৪ নম্বর রুমে প্রায়ই গাঁজার আসর বসে। আমি এর প্রতিবাদ করি। মঙ্গলবার ১০২ নম্বর রুমে গাঁজার আসর বসায় কয়েকজন। তারা আমার কাছ থেকে পকেটমানি চাইত। একপর্যায়ে আমি খরচ চালাতে না পেরে তার থেকে দূরে সরে আসি। এর জেরে ওইদিন তারা আমার রুমে এসে হামলা চালায়।’

যশোর মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ মহিদুর রহমান বলেছেন, ‘জাকিরের হাত ও পা ভেঙেছে। বুকের হাড়েও আঘাত লেগেছে। এ ঘটনায় অধ্যাপক ডা. নূর কুতুবুল আলমকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।’

যশোর জেলা পুলিশের মুখপাত্র ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ রূপণ কুমার সরকার বলেন, কয়েকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি। শামিম হোসেন, আব্দুর রহমান আকাশসহ কয়েকজনের নাম এসেছে। মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ নিউজ