১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার

গণঅধিকার পরিষদ নেতাদের গ্রেফতারের নিন্দা ও প্রতিবাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক

গণঅধিকার পরিষদের খুলনা জেলার সদস্য সচিব কাজী হামিদুর রহমান রাজিব ও বাগেরহাট জেলার সদস্য সচিব মো. নুরুল ইসলামকে আটকের পর মামলা দিয়ে জেলে পাঠানোর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে দলটির আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়া ও সদস্য সচিব নুরুল হক নুর।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃদ্বয় বলেন, তৃণমূল পর্যায়ে ক্ষমতাসীন দল প্রশাসনকে ব্যবহার করে গণঅধিকার পরিষদসহ রিরোধী রাজনৈতিক দলের কণ্ঠরোধ করার চেষ্টা করছে। তারই অংশ হিসেবে খুলনা জেলার সদস্য সচিব হামিদুর রহমান রাজিবকে আটক করে। এ সময় তার বাড়িতে মাদকদ্রব্য সংরক্ষণের নাটক সাজিয়ে তাকে দায়ী করা হয়। আটকের সময় তাকে মারধর করা হয়।

নেতারা আরও বলেন, একই দিন রাতে বাগেরহাট জেলার সদস্য সচিব নুরুল ইসলামকে খুলনার সোনাডাঙ্গা থানার বাসা থেকে কোনো কারণ না দেখিয়ে স্ত্রী ও সন্তানদের সামনে থেকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে শুক্রবার সারাদিন সোনাডাঙ্গা ও খুলনা সদর থানায় তার পরিবারের সদস্যদেরকে কোনোরূপ তথ্য না দিয়ে হয়রানি করা হয়। সন্ধ্যার দিকে তাকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে নাশকতার মামলা দিয়ে জেল হাজতে পাঠায়, যা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত ও ভিত্তিহীন। পুলিশের এধরনের কর্মকাণ্ড আইন ও সংবিধান পরিপন্থী।

তারা আরও বলেন, ২৫ ফেব্রুয়ারি খুলনা বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় খুলনা ও বাগেরহাটের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে সরকারের নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের জন্য তারা কাজ করছিল। কোনরূপ মাদক ও নাকশতামূলক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে তারা কেউ জড়িত ছিলেন না। গণঅধিকার পরিষদের তৃণমূলের কর্মীদেরকে ভয়ভীতি দেখানো ও দলের স্বাভাবিক কর্মকাণ্ডকে বাধাগ্রস্থ করার উদ্দেশ্যে একই সঙ্গে দুইটি জেলার সদস্য সচিবকে গ্রেফতার করে এ মামলা দেওয়া হয়েছে।’

নেতৃদ্বয় অবিলম্বে গ্রেফতারকৃতদেরকে মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং একই সাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সরকারের বেআইনি কাজে নিয়োজিত না হয়ে পেশাদারিত্ব ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

সর্বশেষ নিউজ