২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বৃহস্পতিবার
--বিজ্ঞাপন-- Bangla Cars

ছাত্রলীগের নামে যা হচ্ছে তা আমাদের লজ্জা দেয়, হতাশ করে: কাদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো
spot_img

ছাত্র লীগের রাজনীতির নামে যারা বিশৃঙ্খলা করছেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আজকে ছাত্রলীগের নামে যা হচ্ছে এটা আমাদের হতাশ করে, আমাদের লজ্জা দেয়। আমি একটা কথা বলব, যারা বিশৃঙ্খলা করছেন- শেখ হাসিনা কোনো অপরাধকে প্রশ্রয় দেন না, তিনি ছাড় দেবেন না।’

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য প্রয়াত মোছলেম উদ্দিন আহমেদের শোকসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেছে বেছে দিয়েছেন। আমার বিশ্বাস আমাদের যে কমিটি নেত্রী পছন্দ করেছেন, তাদের হাত ধরে ছাত্রলীগের সুনাম ফিরে আসবে। যারা অনিয়ম করবে তাদের চিহ্নিত করা হবে। কঠিন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোনোরকম অনিয়ম প্রধানমন্ত্রী ছাড় দেন না। দুর্নীতি করলে আমাদের এমপিদেরও জেল হয়। কাজেই তরুণ তুর্কিরা তোমরা সাবধান হয়ে যাও। কেউ অপকর্ম করলে তাকে শাস্তি পেতেই হবে।’

বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘বিএনপির আন্দোলনের গতি কমে গেছে, গলার জোর বেড়ে গেছে। তারা সেই ১০ তারিখ থেকে দেশ দখল করে। তার পরের দিন থেকে তারা দেশ চালানোর কথা। আজকে মির্জা ফখরুল আন্দোলনের কথা বলে যাচ্ছেন। লোটা-কম্বল নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় সমাবেশ করেছে। তারপর দেখাল লালকার্ড, আজকে শুনলাম নীরব পদযাত্রা। তারা জানে নির্বাচন হলে তারা জিতবে না, শেখ হাসিনাই জিতবে। তারা শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তাকে ভয় পায়। এ জন্য তারা ইলেকশনে আসতে চায় না।’

গ্রুপিং রাজনীতি বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কেউ হারাতে পারবে না। বিএনপি ক্ষমতায় গেলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা মুছে দেবে, হাওয়া ভবনের লুটপাট ভুলে গেছেন? এরা ক্ষমতায় গেলে লুটপাট করবে। আপনারা শুধু ঐক্যবদ্ধ থাকবেন।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদকে স্মরণ করে তিনি বলেন, ‘মোছলেম ভাই ত্যাগী নেতা, তার জীবন থেকে আমাদের অনেক কিছু শেখার আছে। এ দেশে রাজনীতিকদের দুর্ভাগ্য মৃত্যুর কিছুদিন পরে আমরা তাদের ভুলে যাই।’

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় এতে প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, হুইপ শামসুল হক চৌধুরী, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, আওয়ামী লীগের অর্থ ও পরিকল্পনাবিষয়ক সম্পাদক ওয়াশিকা আয়শা এমপি, আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণবিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়াসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।

সর্বশেষ নিউজ