২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বুধবার
--বিজ্ঞাপন-- Bangla Cars

ফের ফাঁস ইবি ভিসির ফোনালাপ

নিজস্ব প্রতিবেদক
spot_img

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামের কণ্ঠসদৃশ নিয়োগ সংক্রান্ত আরেকটি অডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে।

মঙ্গলবার (৭ মার্চ) রাতে ফারাহ জেবিন, আল বিদা ও মিসেস সালাম নামে তিনটি ফেসবুক আইডি থেকে অডিওটি আপলোড করা হয়।

অডিওটিতে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামের একপাক্ষিক কন্ঠ শোনা যায়। অডিওটির কথোপকথনে তিনি বলেন, জি আলহামদুলিল্লাহ, আপনি ভালো আছেন। আমি ঢাকায় আছি। কালকে যাব। ১২ তারিখে আমাদের একটি মিটিং ছিল। ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে কয়েকটা সার্কুলার দিয়েছে বলে গতকাল বা গতপরশু। শুনেন ভাই আপনার যে নির্দিষ্ট যেটা দিতেই হবে এটা কম জিনিস না। হ্যা, এটাই আমাকে একটু আগেই করে রাখবেন আরকি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আপনার আরেকটা ভাইজি ছিল না ইকোনোমিকসের জন্য। আমি এইটা নিয়ে একটাই খুঁজে পাচ্ছি না। কিন্তু এইটা আমি মনে রাখসি। ও ফার্স্ট বা সেকেন্ড না হলেও আমি ব্যবস্থা করব। আচ্ছা যা হোক আপনার কেবল এক গেছে তাই তো। আপনি এপ্লাই টেপ্লাই করেন। যখন আপনার ভাইবা কার্ড পাবেন হ্যাঁ আর ওখানে খেয়াল রাখবেন যেন ভাইবা থেকে না বাদ পড়ে। ও এপ্লাই করে এসে প্রথমে আমার সাথে দেখা করুক। আপনাকে ভাইবা পর্যন্ত তো প্রথমে আসতে হবে। রিক্রুমেন্টের যে রুলসগুলো সেগুলোতো আমাকেও করতে হবে। আপনি আমার কাছেই পাঠান আর ওর নামটা বলেন তো ‘জুবায়ের’ আর ওকে আপনার রেফারেন্স দিয়ে আমার সাথে সরাসরি যেন দেখা করে।’

এ বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ সালামের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘আমি এই বিষয়ে আপাতত কিছু বলতে চাচ্ছি না, এই অডিও আমার হতেও পারে- নাও হতে পারে। আমি থানায় জিডি করেছি, তারা বাকি ব্যবস্থা নেবে।’

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উপাচার্যের সঙ্গে সাংবাদিকতা বিভাগের চাকরিপ্রাথী অলিউল রহমানের একাধিক কথোপকথন ফাঁস হয়। সেখানে উপাচার্যের কণ্ঠের সাদৃশ্য কাউকে বলতে শোনা যায় যে টাকা দিয়ে হলেও দুইজন প্রার্থী সংগ্রহ করার কথা বলা হয়। এছাড়াও নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নবিষয়ক আলাপন করতে শোনা যায়। পরে আরো একটি আইডি হতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্রলীগ সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করা অডিও ফাঁস হয়। এ নিয়ে ক্যাম্পাসে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে।

অডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর বিষয়টি খতিয়ে দেখার দাবি জানিয়েছিল ইবি শিক্ষক সমিতি। একই ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠনের আহ্বান জানায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরাম।

সর্বশেষ নিউজ