২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, বুধবার
--বিজ্ঞাপন-- Bangla Cars

শিক্ষার্থী-স্থানীয়দের সংঘর্ষে রণক্ষেত্র রাবি, পুলিশ ফাঁড়িতে আগুন

রাবি প্রতিনিধি
spot_img

বাসের ভাড়াকে কেন্দ্র করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীদের সঙ্গে স্থানীয়দের দফায় দফায় সংঘর্ষ চলছে। এতে দুই শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে ছাত্ররা বিনোদপুর পুলিশ ফাঁড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেইট অবরোধ করে দুপক্ষ অবস্থান নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনোদপুর গেটে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নিজ বাড়ি বগুড়া থেকে বিশ্ববিদ্যালয় আসার সময় বাসের ভাড়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ হয়। সন্ধ্যা ৬টায় মোহাম্মদ নামের ওই বাসে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিল। বিনোদনপুর বাজারে আসলে বাসের লোকজনের সঙ্গে রাবি শিক্ষাথীদের ভাড়া নিয়ে সমস্যা হয়। পরে কাউন্টারে এলে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা কটাকাটি সংঘর্ষ রূপ নেয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে শিক্ষার্থীরা এসে বিনোদপুর গেইটে জড়ো হওয়া শুরু করে।

এসময় স্থানীয়রাও গেইটের অপর পাশে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে দুই পক্ষে রাজশাহী -ঢাকা মহাসড়কে মধ্যে ইট পাটলকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। এখন পযন্ত ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলছে।

শিক্ষার্থীরা বলছেন, স্থানীয়দের এমন অত্যাচার আমরা মেনে নিতে পারছি না। কিছু হলেই তারা শিক্ষার্থীদের মারছে, প্রতিবাদ করারও সুযোগ দিচ্ছে না। এদিকে পুলিশও আমাদের এসে টিয়ারশেল নিক্ষেপ করছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, আমাদের অনেক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। আমরা সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। শিক্ষার্থীদের তিনি শান্ত থাকার আহবান জানান।

রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেন, বাস ভাড়াকে কেন্দ্র করে রাবি ও স্থানীয়দের মধ্যে সংঘর্ষ চলছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে।

রাত ১০টায় প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এখনো বিশ্ববিদ্যালয় বিনোদপুর গেইটে অবস্থান নিয়ে আছেন। আহত শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

সর্বশেষ নিউজ