১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার

দুবাইয়ে জুয়েলার্সের উদ্বোধনে সাকিব, পক্ষ নিলেন হিরো আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

 

সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে, ঢাকায় পুলিশ হত্যা মামলার আসামি আপন আরাভ খানের স্বর্ণের দোকান উদ্বোধন অনুষ্ঠানে গেছেন দেশখ্যাত শিল্পী হিরো আলম। শুধু হিরো আলমই নন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশে ক্রীড়াঙ্গন ও চলচ্চিত্র তারকাদের অনেকেই।

ফলে এই  নিয়ে কয়েক দিন ধরে আলোচনা চলছে আরাভ জুয়েলার্স নামের ওই প্রতিষ্ঠানের মালিকের নাম নিয়ে । তার নাম আরাভ খান, তবে এটা তাঁর আসল নাম নয়।আসল নাম রবিউল ইসলাম। বাংলাদেশের গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার ছেলে রবিউল ইসলাম। চার বছর আগে ঢাকায় একজন পুলিশ কর্মকর্তাকে হত্যার আসামি হয়ে দেশত্যাগী হন তিনি। আর এই তথ্য বের হয়ে আসে উদ্বোধনীর দিনে দেশের সংবাদমাধ্যমে।

জুয়েলার্স উদ্বোধন করেছেন ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। আর এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে ব্যাপক আলোচনা।

সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন,সে পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুন এমরান খান হত্যাকাণ্ডের পর ২০১৮ সালে পালিয়ে ভারতে চলে যান। সে সময় তার বয়স ছিল ৩০ বছর । পরে ভুয়া নাম দিয়ে ভারতীয় পাসপোর্ট তৈরি করে আর সেই পাসপোর্ট দিয়েই পাড়ি জমান দুবাইতে । এখন তিনি দুবাইয়ের বড় স্বর্ণ ব্যবসায়ী।

কয়েক দিন আগে তার জুয়েলার্স এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের খ্যাতিমান তারকাদের সম্ভাব্য উপস্থিতির কথা উল্লেখ করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছিলেন রবিউল। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, দুবাইয়ের বুর্জ খলিফা টাওয়ারের ৬৫ তলায় ফ্ল্যাট কিনেছেন।

আর ওই ফেসবুক পোস্ট দেখে অনেকেই চিনে ফেলেন, তিনি বাংলাদেশী পুলিশ কর্মকর্তা হত্যার আসামি রবিউল। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একটি সূত্র বলছে, পুলিশের সাবেক একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার টাকায় দুবাইয়ে সোনার ব্যবসা শুরু করেন রবিউল ইসলাম।

আর এই নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে হিরো আলম  হোয়াটসঅ্যাপে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি জানি, সবই জানি, সারাক্ষণ আরাভ ভাইয়ের কাছেই থাকি। বিষয়টি জানি। এটা নিয়ে আমাদের কোনো কিছু করার নাই তো। আমরা আর্টিস্ট যেকোনো জায়গাতে যেতে পারি। কে কী সেটা তো আমরা দেখিনি।

আগে থেকেই বিষয়টি জানতেন কিনা,এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘না, এখানে আসার পর, যেদিন নিউজ হয়েছে তখন জানলাম।’

বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমার কোনো মন্তব্য নেই। কারণ আমরা আর্টিস্ট, আমরা যে কোনো জায়গায় যেতে পারি। আর এই যে নিউজ করেছে, উনি যে এক মাস ধরে প্রচার চালাচ্ছে, এক মাস আগে কোথায় গিয়েছিল। তার নামে এত কিছু আছে, এ নিয়ে যদি আগে নিউজ করত, আমরা ভেবে দেখতাম, অনুষ্ঠানে যাব কী যাব না।’

দুবাই থেকে আরও দিন তিনেক পরে দেশে ফিরবেন বলেও জানান হিরো আলম।

 

 

 

 

 

 

 

সর্বশেষ নিউজ