১৭ এপ্রিল ২০২৪, বুধবার

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্মার্ট সিটিজেনের রোল মডেল: আইইবি 

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশের প্রাচীন পেশাজীবি প্রতিষ্ঠান ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন,বাংলাদেশ (আইইবি) নেতৃবৃন্দ বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশ তৈরির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি স্বপ্ন দেখতেন বাংলাদেশ আধুনিক ও স্মার্ট ভাবে গড়ে উঠবে। স্বাধীনতার পর বিশ্ব নেতারা বঙ্গবন্ধুকে রোল মডেল হিসেবে অনুসরণ করতেন। ফিদেল কাস্ত্রো, নেলসন ম্যান্ডেলাসহ বিশ্বনেতারা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ভাবতেন। বঙ্গবন্ধু চিন্তা চেতনায় ছিলেন আধুনিক ও স্মার্ট। বাংলাদেশের প্রতি মাটি কণাকে প্রকৌশলী জ্ঞানের মাধ্যমে ব্যবহার করার জন্য বঙ্গবন্ধু আহবান জানিয়েছিলেন৷

শুক্রবার রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন করতে গিয়ে প্রকৌশলী নেতারা এসব কথা বলেন৷

এসময় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মো : আবদুস সবুর, আইইবির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ শাহাদাৎ হোসেন শীবলু, নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার এস এম মঞ্জুরুল হক মঞ্জুসহ আইইবির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আবদুস সবুর বলেন, আজকের যত উন্নয়ন বাংলাদেশে দেখতে পাই তার শুরু করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মানে স্মার্ট সিটিজেন হতে চাইলে অবশ্যই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে অনুসরণ করতে হবে৷ নবগঠিত স্বাধীন রাষ্ট্র বিনির্মান করতে যে ধরনের প্রযুক্তি দরকার তা দেশীয় প্রকৌশলী দ্বারা তৈরি করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

আইইবির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মোঃ শাহাদাৎ হোসেন শীবলু বলেন, বঙ্গবন্ধুর মাধ্যমেই বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র পরিচিতি লাভ করেছে৷ বাংলাদেশকে বিশ্বের রোল মডেল করেছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানই৷

নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এস এম মঞ্জুরুল হক মঞ্জু বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কারনেই আমরা বাঙ্গালি ও বাংলাদেশের নাগরিক। তারপরও এদেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে এবং পেশাজীবি সকল নির্বাচনকে বিতর্কিত করতেই বিএনপি সুপ্রিম কোর্টের নির্বাচনে হামলা করেছে।

আইইবি চত্ত্বরে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপন শুরু হয়। সকালে ধানমন্ডি-৩২ নম্বরের আইইবির নেতৃবৃন্দ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। আইইবির সম্মেলন কক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগষ্ট ১৯৭৫ সালের নিহত সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত ও দোয়া কামনা করা হয়৷ সবশেষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়৷

বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মোঃ নুরুজ্জামানের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আইইবির ভাইস প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ হোসাইন, ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মঞ্জুর মোর্শেদ, সহকারী সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আবুল কালাম হাজারী, নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার অমিত কুমার চক্রবর্তী, আইইবির ঢাকা কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার কাজী খায়রুল বাসার, নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ হাবিব আহমেদ হালিম মুরাদ, কৃষি কৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়া, সম্পাদক প্রকৌশলী মোঃ মেসবাহুজ্জামান চন্দন, আইইবির বিভিন্ন বিভাগের নবনির্বাচিত কমিটির সদস্যসহ ও আইইবি এবং বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের সকল নেতৃত্ববৃন্দ ।

সর্বশেষ নিউজ